যে ধরনের মেয়েদের সাথে ভুলেও সম্পর্কে জড়াবেন না

জীবনের সবথেকে বড় সিদ্ধান্ত গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো সঠিক জীবনসঙী নির্বাচন করে নেয়াছেলে মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্নকাউকে ভালো লাগল, আর সঙ্গে সঙ্গে প্রেমে পড়ে গেলেন কিংবা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিলেন, এমন করাটা হবে বোকামিবরং সঙ্গিনী নির্বাচন করুন একটু ভেবেচিন্তেসঙ্গী নির্বাচনের ক্ষেত্রে ভুলের কারনেই সাধারনত বিবাহবিচ্ছেদের মত ঘটনাগুলো ঘটে থাকে
নিয়ন্ত্রক: প্রাথমিক আচরণেও আপনার কাছে বেশ মার্জিত মনে হলোকিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই টের পেলেন, সে আপনার সব কিছু ‘নিয়ন্ত্রণ’ করতে চায়এমন ধরনের আচরন ছেলেদের ক্ষেত্রেও দেখা যায়বুদ্ধিমানের কাজ হবে এইধরনের মানুষ থেকে দূরে থাকা
অস্পষ্টতা: মেয়েটি কোনো কিছুই স্পষ্ট করে বলে নাসব সময় আপনাকে অনুমান-নির্ভর অবস্থায় রাখেসে আপনাকে ভালোবাসে কি না, সেটাও বোঝার জো নেইএমনকি ‘হ্যাঁ’ বললেও আপনি দ্বিধার মাঝে থাকেনএ ধরনের মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে নিজের জীবনটাকে ‘অনিরাপদ’ অবস্থায় ফেলবেন না
আমার মা-বাবা যা বলবে তা-ই হবে: মেয়েটি জীবনের প্রতিটি সিদ্ধান্তে মা-বাবার ওপর নির্ভরশীলব্যক্তিগত বা অর্থনৈতিক সব সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে সে তাঁদের দিকে তাকিয়ে থাকেএ ধরনের মেয়ে থেকে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখুনভালো থাকবেন
অতি সহজে যারা মানুষকে বিচার করা: ছোট খাটো কোনো ঘটনা দিয়েই যারা মানুষকে বিচার করে তেমন মানুষকে বন্ধু হিসাবে না দেখাই ভালঅর্থাৎ কোনও একটা ঘটনার ভিত্তিতে কারোর সম্পর্কে ধারণা বানিয়ে ফেলেন অনেকেপরে যদিও তারা ভুল প্রমাণিত হনকিন্তু মুশকিলটা হল এই ধরণের বন্ধু থাকলে কোনও না কোনও ভাবে আপনার নিজস্ব চিন্তাভাবনাও প্রভাবিত হবে
অন্যরা আমাদের চেয়ে ভালো আছে: মেয়েটি সব সময় অন্যদের সঙ্গে তার জীবনের তুলনা করছেঅন্য বন্ধুরা অপেক্ষাকৃত ধনী, সুখী, সফল—এসব সে মেনে নিতে পারছে নাঅন্যদের মতো হতে না পেরে ভেতরে ভেতরে সে পুড়ে যাচ্ছেআর যা-ই হোক, এমন মেয়ে নিয়ে শান্তি পাওয়ার আশা করাটা ভুল হবে

Leave a Reply